Sunday, 21 April 2024
Trending

বাংলা

পশু বিকাশ দিবসের পঞ্চম সংস্করণের আয়োজন করল ফুলর্টন ইন্ডিয়া, পশ্চিমবঙ্গে বিনামূল্যে চিকিৎসা পেল ২৮০০+ গবাদি পশু

নিজস্ব প্রতিনিধি –

ভারতের অন্যতম অগ্রগণ্য NBFC – ফুলর্টন ইন্ডিয়া তাদের বার্ষিক পশু বিকাশ দিবস (PVD)-এর মধ্যে দিয়ে পশু পরিচর্যা সম্পর্কে অন্যতম বৃহত্তম অন-গ্রাউন্ড গবাদি পশু পরিচর্যা সচেতনতা অভিযানের আয়োজন করেছিল। একইসঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের ১৫টি স্থানে গবাদি পশু পরিচর্যা শিবিরের আয়োজন করা হয়েছিল, যেখানে ২৮০০-র বেশি গবাদি পশুকে বিনামূল্যে পরীক্ষা করা হয়েছে এবং মেডিক্যাল সাহায্য দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও ফুলর্টন ইন্ডিয়া ৪ঠা থেকে ১১ই ফেব্রুয়ারি ২০২৩ পর্যন্ত রাজ্যের ৭টি স্থানে গবাদি পশুর মালিকদের জন্য স্বাস্থ্য পরীক্ষা শিবির আয়োজন করেছিল, যাতে ৪৫০ জন উপকৃত হয়েছেন।

বৃহত্তর প্রোগ্রামের অংশ হিসাবে শিবিরগুলো একইসঙ্গে ৩৭৪টির বেশি স্থানে আয়োজিত হয়, যাতে দেশজুড়ে ১৫টি রাজ্যের ৫০০-র বেশি গ্রামের ৭১,৪০০+ গবাদি পশুর চিকিৎসা করা হয়।

এই শিবিরগুলোতে পশু চিকিৎসকদের সাহায্যে বিনামূল্যে গবাদি পশুদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো হয়, বিনামূল্যে ওষুধ ও দুধ কী করে বাড়ানো যায় সে সম্পর্কেও পরামর্শ দেওয়া হয়। ফুলর্টন ইন্ডিয়া ৪ঠা থেকে ১১ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ভারতে ২৪৫টির বেশি স্থানে গবাদি পশুর মালিকদের জন্য স্বাস্থ্য পরীক্ষা শিবিরের ব্যবস্থাও করেছিল, ২০,৪০০ মানুষ উপকৃত হয়েছেন।

কোম্পানির এই অনন্য উদ্যোগের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করে শ্রী শান্তনু মিত্র, চিফ্ এক্সিকিউটিভ্ অফিসার অ্যান্ড ম্যানেজিং ডিরেক্টর, ফুলর্টন ইন্ডিয়া, বললেন, “ফুলর্টন ইন্ডিয়াতে আমরা পর্যাপ্ত পরিষেবা না পাওয়া জনগোষ্ঠীগুলোর মধ্যে অন্তর্ভুক্তিমূলক আর্থিক বৃদ্ধির পথ সুগম করি এবং এই চিন্তাভাবনা আমাদের গ্রাহকদের আরও কাছাকাছি পৌঁছে দেয়, তাঁদের আর্থিক প্রয়োজনগুলো মেটাতে সাহায্য করে এবং সমাজের সামগ্রিক উন্নতিতে সাহায্য করে। আমাদের কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামগুলো গ্রামীণ জনগোষ্ঠীগুলোর জীবনযাত্রার উন্নতির উপর জোর দেয়। যাতে তাদের জীবনযাত্রার মান বাড়ে এবং তাদের আয়ের জোগান আরও শক্তিশালী হয়। বহু ভারতীয়ের জন্য গবাদি পশু অত্যন্ত অপরিহার্য সম্পদ রূপে গণ্য। তাই আমরা বার্ষিক পশু দিবসের আয়োজন করি যাতে কেবল আমাদের গ্রাহকদের গবাদি পশুগুলোর স্বাস্থ্য পরিচর্যার সুবিধা দেওয়াই নয়, বৃহত্তর কৃষক সমাজকেও এই সুবিধা দেওয়া যায়। এতে কাজটার সামাজিক মূল্য বৃদ্ধি পায়। এই প্রয়াসের ফলে গবাদি পশুর মালিকরা পোষ্যের উৎপাদন ক্ষমতা এবং নিজের পারিবারিক আয় বাড়াতে পেরেছেন, যার ইতিবাচক সামাজিক প্রভাব পড়েছে।”

কোম্পানি প্রথম পশু বিকাশ দিবস লঞ্চ করে ২০১৪ সালে একদিবসীয় গবাদি পশু পরিচর্যা শিবির হিসাবে, ভারতজুড়ে বিভিন্ন জায়গায়। সেই শিবিরগুলোতে কোম্পানির কর্মচারীরা গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর মানুষের সঙ্গে তাঁদের গবাদি পশুর যত্ন নেওয়ার ব্যাপারে আলোচনা করেন।

বহু বছর ধরে ফুলর্টন ইন্ডিয়া গবাদি পশুর মালিকদের প্রয়োজনীয় গবাদি পশু স্বাস্থ্য পরিচর্যার সুবিধা এবং পরামর্শ জুগিয়ে চলেছে, যাতে তাঁরা পোষ্যের উৎপাদনশীলতা এবং নিজের পারিবারিক আয় বাড়াতে পারেন। আজ পর্যন্ত পশু বিকাশ দিবসে ২,৭১,০০০ গবাদি পশুর চিকিৎসা করা হয়েছে এবং ৮০,০০০-এর বেশি মালিক উপকৃত হয়েছেন।

পশু বিকাশ দিবস সম্পর্কে শ্রী স্বামীনাথন সুব্রমনিয়ন্, চিফ্ পিপল্ অফিসার অ্যাট ফুলর্টন ইন্ডিয়া, মন্তব্য করেন “ভারতের গ্রামীণ কেন্দ্রীয় অঞ্চলগুলোর বহু চাষি আয়ের জন্য গবাদি পশু পালন করার উপর নির্ভরশীল। আমাদের পশু বিকাশ দিবস প্রকল্পের মাধ্যমে আমাদের লক্ষ্য এই জনগোষ্ঠীকে একটা নেটওয়ার্কিংয়ের মঞ্চ দেওয়া, যেখানে তাঁরা গবাদি পশু পরিচর্যার উপযুক্ত সুযোগ পান। এটা আমাদের কর্মচারীদের পক্ষেও একটা মহৎ উদ্দেশ্য, যার মাধ্যমে তাঁরা সমাজসেবার সুযোগ পেয়ে থাকেন।”

২০১৪ সালে লঞ্চ হওয়ার পর পশু বিকাশ দিবস ২০১৫, ২০১৮, ২০১৯ এবং ২০২৩ সালে আয়োজিত হল। ফুলর্টন ইন্ডিয়া ২০১৫ লিমকা বু্ক্ অফ্ রেকর্ডসে ভারতের বৃহত্তম একদিবসীয় গবাদি পশু পরিচর্যা শিবির হিসাবে জায়গা করে নিয়েছে। ২০১৮ সালে পৃথিবীর বৃহত্তম একদিবসীয় গবাদি পশু পরিচর্যা শিবির তকমা দিয়েছে বেস্ট অফ্ ইন্ডিয়া রেকর্ডস, আর ২০১৯ সালে ওয়ার্ল্ড বু্ক্ অফ্ রেকর্ডস বৃহত্তম গবাদি পশু পরিচর্যা শিবির হিসাবে স্বীকৃতি দিয়েছে।