Friday, 23 February 2024
Trending

বাংলা

নীলাম্বরের বার্ষিক উৎসব লিটাররিয়া – ২০২৩, ১ লা ডিসেম্বর থেকে আয়োজিত হবে

নিজস্ব প্রতিনিধি –

দেশের মর্যাদাপূর্ণ সাহিত্য-সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান নীলাম্বরের বার্ষিক উৎসব ‘লিটাররিয়া’ এই বছর ১ থেকে ৩ ডিসেম্বর ২০২৩ পর্যন্ত আয়োজিত হতে চলেছে। লিটারেরিয়ার সপ্তম সংস্করণের তিন দিন ব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন বি. সি রায় শিয়ালদহের অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। সারাদেশের কবি, লেখক, সমালোচক, নাট্যকার ও শিল্পীদের এক প্লাটফর্মে জড়ো করে সাহিত্যের পরিবেশ তৈরি করাই লিটারিয়ার মূল উদ্দেশ্য।

তিন দিনের অনুষ্ঠানের প্রথম দিন প্রদীপ প্রজ্জ্বলন ও সোনালী পান্ডে তার দল এর কাব্যিক নৃত্য পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু হবে। প্রথম সেমিনার অধিবেশনে, উদয় প্রকাশ, মোহন শ্রোত্রিয়, প্রিয়াঙ্কর পালিওয়াল, ইতু সিং ‘শ্রদ্ধা কে বিকলাঙ্গ দৌড় অর পার্সাই’ বিষয়ে তাদের মতামত উপস্থাপন করবেন। ‘আজাদ মুলকের দরবারী রাগ’ বিষয়কে কেন্দ্র করে আয়োজিত দ্বিতীয় সেমিনার অধিবেশনে বক্তা হিসেবে সুধীশ পাচৌরি, মণীন্দ্রনাথ ঠাকুর, বেদ রমন এবং বিহাগ বৈভব তাদের মতামত উপস্থাপন করবেন। এরপর নীলাম্বরের দল পরিবেশন করবে কবিতার কোলাজ ‘বহুত সারা চারা, বহুত কম দুধ’ (অবিনাশ মিশ্রের কবিতা)। দিনের আরেকটি হাইলাইট হবে গজলের একটি সন্ধ্যা। যার মধ্যে থাকবেন অবিনাশ দাস, সুনীল কুমার শর্মা, পারভেজ আখতার, শৈলেশ গুপ্ত, আয়াজ খান আয়াজ। দিনের শেষে, ফণীশ্বরনাথ রেণুর গল্প অবলম্বনে এবং রিতেশ কুমারের পরিচালনায় নীলাম্বর প্রযোজিত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘সম্বাদিয়া’ উপস্থাপিত হবে।

দ্বিতীয় দিনের সূচনা হবে তরুণ গায়ক বাসু গন্ধর্বের কাব্যসঙ্গীত দিয়ে। আদর্শিক দৃষ্টিকোণ থেকে আমাদের ভবিষ্যৎ যাতে আরও সমৃদ্ধ হয় সেজন্য নীলাম্বর এই অনুষ্ঠানে তরুণদের স্থান দিয়েছেন। ‘যুব সম্বাদ’-এ, পূজা মিশ্র, অন্বেষা কবিরত্ন, কালু তামাং, ভানু প্রতাপ পান্ডে ‘বিকলাঙ্গ শ্রদ্ধা কে দৌড় অর হাম’ বিষয়ে তাদের মতামত উপস্থাপন করবেন। এই দিনের প্রথম সংলাপ অধিবেশনে, সুধীশ পাচৌরি, উদয়ন বাজপেয়ী, বেদ রমন এবং বিনয় মিশ্র ‘আংরেজি রাজ মে শিবশম্ভূ কে চিটঠে’ বিষয়ে তাদের মতামত উপস্থাপন করবেন।

এবারের অনুষ্ঠানের প্রধান আকর্ষণ থাকবে দেশ-বিদেশের বিশিষ্ট ও তরুণ কবিদের কবিতা পাঠ। প্রথম কবিতা অধিবেশনে থাকবেন উদয়ন বাজপেয়ী, হরিশচন্দ্র পান্ডে, নিশান্ত, বিবেক চতুর্বেদী, সঞ্জয় ভিসে, প্রজ্ঞা সিং। দিনের শেষে রিতেশ কুমারের পরিচালনায় লোকরঙ্গীর দল পরিবেশন করবে ‘ভাকো ধানম’ নাটকটি।

মুক্তিবোধ, সর্বেশ্বর দয়াল সাক্সেনা এবং নীলাম্বরের দল উদয় প্রকাশের কবিতা আবৃত্তির মাধ্যমে সাহিত্যের তৃতীয় দিন শুরু হবে। এরপর আবৃত্তি করবেন প্রখ্যাত গল্পকার পঙ্কজ মিত্রের গল্প ‘বেচুলাল কা ভূত ওরফে বেলাকভু’। এই দিনে, সিনেমার উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ সংলাপ অধিবেশনে, প্রমোদ সিং, অবিনাশ দাস, আশুতোষ দুবে এবং হিতেন্দ্র প্যাটেল ‘জানে ভি দো ইয়ারন: সিনেমা মে ব্যাঙ্গ’ বিষয়ে তাদের মতামত উপস্থাপন করবেন। এই দিনের কবিতা পাঠের আসরে আমাদের কবিরা হলেন উদয় প্রকাশ, আশুতোষ দুবে, ফরিদ খান, ঝিলাম ত্রিবেদী (বাঙালি), বিহাগ বৈভব এবং বাসু গন্ধর্ব।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ হবে তিন দিনব্যাপী সাহিত্যের আসর। যেখানে একটি কাব্যিক গান পরিবেশন করবেন অজয় রাই। দিনের শেষে, জবলপুরের বিবেচনা রং মণ্ডলের দল ‘নিথাল্লে কি ডায়েরি’ (হরিশঙ্কর পরসাইয়ের গল্পের কোলাজ) উপস্থাপন করবে। এর নাট্য রূপান্তর ও পরিচালনা করেছেন অরুণ পান্ডে। পরবর্তীকালে, এই বছর নীলাম্বর ঘোষিত ‘রবি ডেভ সম্মান’ এবং ‘নিনাদ সম্মান’ যথাক্রমে বিনয় শর্মা এবং অজয় রাইকে দেওয়া হবে।