Sunday, 21 April 2024
Trending

লাইফ স্টাইল

অভিনেত্রী মৌবনী সরকারের হাত ধরে উদঘাটন হল “কেয়ার ইউ” এর নতুন প্রোডাক্ট

নিজস্ব প্রতিনিধি –

বাবা কমল করের ইচ্ছায় ও অনুপ্রেরনাতে বড় হয়ে উঠা এক সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারের মেয়ের স্বপ্ন ছিল মানুষের জন্য কিছু একটা করার। অশোকনগর থেকে দুর্গানগরে স্বামী ইন্দ্রনীল সাহার সাথে বিবাহবন্ধন এবং একমাত্র কন্যা কেয়া কে নিয়ে আজ বহু মানুষের প্রতিপালকের ভূমিকায় কাবেরী। আজ এক বুক স্বপ্নের কারিগর কাবেরীর বাংলার ঘরে ঘরে তাঁর তৈরী করা সৌন্দর্য্য পরিচর্যার হাতিয়ার “কেযার ইউ” প্রোডাক্ট পৌছে দিচ্ছেন।
তাঁরই উদ্দ্যোগে রূপ সজ্জার নতুন দুটি প্রোডাক্টের সূচনা হল।”আণ্টি ব্লেমিশ ক্রিম” এবং “এক্সপার্ট হেয়ার কালার শ্যাম্পু”। কাবেরী এবং মেয়ে কেয়া সাহা টালিগঞ্জের অভিনেত্রী মৌবনী সরকারের হাতে তুলে দিলেন নতুন প্রোডাক্ট দুটি।

কর্ণধার কাবেরী জানালেন-
অনেক মানুষের স্বচ্ছলতা থাকা স্বত্বেও সৌন্দর্যের সঠিক পরিচর্যা করতে পারে না, বলিরেখা বা বার্ধক্যে কালো ছোপ ছোপ দাগ ,স্ট্রেচ মার্ক, বার্থ মার্ক ইত্যাদি ইত্যাদি।
এই অত্যাধুনিক যুগে মডার্ন টেকনিকের সহাহতায় মানুষ কে সুন্দর করা যেতে পারে। সেই চিন্তা মাথায় নিয়েই মডার্ন ট্রিটমেন্টের উপর ডিপ্লোমা করে


মেশিন সম্বন্ধে বিস্তর জানার পর এবং কিছু ডাক্তারের পরামর্শ ও সহযোগিতায় প্রতিষ্ঠিত হলো ২০১২ সালের ২২ শে জুলাই “কেয়ার ইউ”। দীর্ঘ ১২ বছরে প্রায় সাতটা ব্রাঞ্চ । সৌন্দযের উপকরণ যাতে বাড়িতে বসেই মানুষ পেতে পারেন তার জন্য চালু হল অনলাইন ডেলিভারি। এর ফলে ব্যবসার সঙ্গে চলল অনেক মহিলার কর্মসংস্থানের যোগ সূত্র ,পাশাপাশি ঘরে ঘরে পৌঁছে দেওয়ারও কাজ পেলেন মহিলারা। অনেক অর্থ আর লড়াই করে নিরন্তর চেষ্টা চালিয়ে এখন পর্যন্ত 20 টি বিউটি প্রোডাক্ট মার্কেটে রয়েছে।যা শহর কোলকাতা ছাড়িয়ে কৃষ্ণনগর, বহরমপুর, দুর্গাপুর, মালদা ,শিলিগুড়ি এবং রাজ্যের বাইরে দিল্লি মুম্বাই -ত্রিপুরা আসামে বাজারজাত করতে পেরেছি শুধুমাত্র মানুষের চাদিদার সাথে আমাদের কর্মীদের অপার সম্ভাবনাময় উৎপাদনী দক্ষতায় জানালেন কেয়ার ইউ এর কর্নধার কাবেরী সাহা।উৎপাদনের দুটির বিষয়ে তিনি বলেন…
আণ্টি ব্লেমিশ ক্রিম
কসমেটিক ,হার্বাল অনেকের মুখে শোনা যায় সানটোন, যেকোনো কালো দাগ মুখের স্কিন নষ্ট করে দেয়।আণ্টি ব্লেমিশ কেয়ার কালো দাগ ছোপ ছোপ দাগ সরিয়ে মুখের উজ্জলতা ফিরিয়ে আনে। যেকোনো স্কিনে এই আণ্টি ব্লেমিস ক্রিম ব্যবহার করা যেতে পারে। ছেলে মেয়ে
ব্যবহার করতে পারবে। এই ক্রিমের দামও খুব কম। তাই সবার জন্য শ্রেয়।

,এক্সপার্ট হেয়ার কালার শ্যাম্পু
এই শাম্পু পুরো হার্বাল নানি বেসড শাম্পু।
এটাতে বেশিক্ষণ চলে মাখিয়ে রাখা প্রয়োজন হয় না। চুলে কালার দিলে যেমন মাথার পাশে লেগে থাকে কালার শ্যাম্পু লেগে থাকে না। এই শ্যাম্পু খুব বেশি হলে পাঁচ মিনিট হলে মাখিয়ে রাখলেই চলবে। অ্যামোনিয়া ফ্রি হওয়াতে কোন সাইড এফেক্ট সম্ভব না।